বৃহস্পতির উপগ্রহ ইউরোপাতেই প্রাণের সঙ্কেত পেয়েছেন বিজ্ঞানীরা

বৃহস্পতির উপগ্রহ ইউরোপাতেই প্রাণের সঙ্কেত পেয়েছেন বিজ্ঞানীরা

বিজ্ঞানী স্টিফেন হকিং একাধিকবার বলেছেন, মানুষ যেমন ভিনগ্রহে প্রাণের সন্ধান চালিয়ে যাচ্ছে, তেমনই কোনও ভিনগ্রহের বাসিন্দারাও পৃথিবীর সন্ধান চালাচ্ছে। পৃথিবীর মহাকাশ বিজ্ঞানের থেকেও উচ্চপ্রযুক্তির সাহায্যে হয়তো তারা পৃথিবীর খোঁজ পেয়েও গিয়েছে। যেকোনও দিন পৌঁছে যাবে।

স্টিফেন হকিংয়ের এমন অনুমান ধীরে ধীরে বাস্তবের দিকে এগোচ্ছে।

উপগ্রহ ইউরোপাতেই প্রাণের সঙ্কেত পেয়েছেন বিজ্ঞানীরা

বৃহস্পতির উপগ্রহ ইউরোপাতেই প্রাণের সঙ্কেত পেয়েছেন বিজ্ঞানীরা। সেই সঙ্কেত অদৌ সত্যি কিনা, তা যাচাই করতেই এবার নাসার বিজ্ঞানীদের গন্তব্য হচ্ছে ইউরোপা।

স্টিফেন হকিংয়ের দাবি অনুযায়ী, ভিনগ্রহের বাসিন্দারা পৃথিবীর খোঁজ করছে কিনা, তা প্রমাণ সাপেক্ষ হলেও এই সুবিশাল ব্রহ্মাণ্ডে কোনো গ্রহ বা উপগ্রহে প্রাণ আছে তা নিয়ে নিরন্তর গবেষণা চলছেই। তবে বৃহস্পতির উপগ্রহ ইউরোপায় একেবারে আটঘাট বেঁধেই নামছে মার্কিন মহাকাশ গবেষণা কেন্দ্র নাসা। নাসা জানিয়েছে ইউরোপার দক্ষিণ মেরুতে মাঝে মাঝেই জলের বিস্ফোরণ লক্ষ্য করা গিয়েছে।

২০১২ সালে নাসার স্পেস টেলিস্কোপের কয়েকটি ছবিতে দেখা গিয়েছে, ইউরোপায় সমুদ্রে তরল জল থাকার থাকার সম্ভাবনা প্রবল। আর জল থাকলে প্রাণীও থাকতে পারে।

Share This Post

Post Comment