চশমার সঙ্গে আকর্ষণীয় সাজ

চশমার সঙ্গে আকর্ষণীয় সাজ

পোশাকের সঙ্গে মিল রেখে সাজ-সজ্জা সহজ। কিন্তু নিয়মিত চশমা ব্যবহারকারীরা বাইরে বের হওয়ার সময় সাজ নিয়ে প্রায়ই বিপদে পড়ে যান। মানানসই হলেও চশমা ব্যবহারে বয়স বেশি দেখা যায়। সুন্দর করে সাজগোজ করার পর নাকের ডগায় চশমা ঝুলিয়ে যেন হতাশ হতে না হয়, সেজন্য শিখে নেয়া যাক কিছু সাজগোজের টিপস।

লিপস্টিক

মোটা ফ্রেমের চশমার সঙ্গে গাঢ় রঙের লিপস্টিক বেশ ভালো মানিয়ে যায়। চোখে হালকা সাজ দিয়ে মোটা ফ্রেমের চশমা পরে ঠোঁটে দিন টকটকে গাঢ় রঙের লিপস্টিক।

কাজল

অনেকে ভাবেন চশমা পড়লে চোখের সাজ ঢাকা পড়ে যাবে। বাস্তবে, চশমার সঙ্গে চোখের সাজ অনেক বেশি আকর্ষণীয় লাগে। বিশেষ করে বড় চোখের পাপড়ি চোখের সৌন্দর্য বাড়িয়ে দেয় অনেক বেশি। তাই চশমা পরতে হলে ভালো ব্র্যান্ডের ভারী মাশকারা ব্যবহার করতে পারেন।

আইশ্যাডো

চোখে চশমা থাকলে মুখের চেহারা পুরোটা বদলে যায়। চোখের আশেপাশের স্থানগুলোতে বেশি নজর দেয়া উচিৎ। ফোলা চোখ, ডার্ক সার্কেল কিংবা চোখের চারপাশের লালচে দাগ ঢাকতে ব্যবহার করতে হবে কনসিলার। চশমার ফ্রেমের বাইরে আইশেড ব্যবহার করা থেকে বিরত থাকুন। খুব বুদ্ধি করে চশমার ফ্রেম নির্বাচন করবেন। নতুবা এমনভাবে মেকআপ দেবেন যেনো চোখের আইশেড চশমার ফ্রেমের বাইরে দেখা না যায়। কারণ ফ্রেমের বাইরে আইশেড দেখতে বেশ বিশ্রী লাগে।

ভ্রুর শেপ

সঠিক শেপের ভ্রু চশমার সঙ্গে বেশ আকর্ষণীয় দেখায়। মেকআপের সময় ভ্রু ঠিকমতো একে হাইলাইট করুন। এতে মুখের গড়নে পরিবর্তন আসবে, যা চশমার সঙ্গেও মানিয়ে যাবে।

ফাউন্ডেশন

চশমার ফ্রেমে লেগে চোখের কাছের মেকআপ নষ্ট হয়ে যায়। তাই ফাউন্ডেশনের ব্যাপারে অবশ্যই সচেতন হতে হবে। মেকআপ শেষে অতিরিক্ত মেকআপ ঝেড়ে ব্লটিং পেপার দিয়ে অতিরিক্ত তেল শুষে নিতে হবে।

আইলাইনার

চশমার ফ্রেমের সঙ্গে মানানসই লাগে এমনভাবে আইলাইনার দিতে হবে। মোটা ফ্রেমে আইলাইনার মোটা আর চিকোন ফ্রেমে আইলাইনার চিকোন হতে হবে। এতে করে চোখের আকারের সঙ্গে ফ্রেমের আকার মানিয়ে যাবে। দেখতেও ভালো লাগবে।

Share This Post

Post Comment