মেয়েদের যে ৭টি ভুল কাজে বিগড়ে যায় বয়ফ্রেন্ড

মেয়েদের যে ৭টি ভুল কাজে বিগড়ে যায় বয়ফ্রেন্ড
বয়ফ্রেন্ডছেলেদের চোখে মেয়েরা খুবই রহস্যময়। আবার মেয়েদেরও চোখেও কিন্তু অনেক দিক থেকে ছেলেদের মন বোঝা দায়। যাই হোক না কেন, এখানে বিশেষজ্ঞরা মেয়েদের এমন ৭টি কাজের কথা জানাচ্ছেন যা দিয়ে তারা ছেলেদের পুরোপুরি হতাশাগ্রস্ত করে দেন। বয়ফ্রেন্ডের মুডটা নষ্ট করে দিতে এর চেয়ে বেশি কিছুর প্রয়োজন হয় না। দেখে নিন সেই সাত বিষয়ের কথা।
১. টেক্সটিংয়ের ক্ষেত্রে কূটচাল : ধরুন, বয়ফ্রেন্ড হঠাৎ করেই একদিন আপনাকে নিয়ে ঘুরে আসতে চাইলেন। একটি টেক্সটও পাঠালেন। কিন্তু এর জবাব দিতে এক ঘণ্টা লাগলো আপনার। এতে ছেলেটি বুঝতেই পারলেন না, আপনি রাগ করেছেন কিনা যে কোনো জবাবই দিলেন না। আবার টেক্সট করার মানসিকতা তার নাও থাকতে পারে। মনটাই ভেঙে যাবে তার।
২. মনোযোগ কাড়তে অন্যের সঙ্গে খুনসুটি : অনেক মেয়েই মনে করেন, বয়ফ্রেন্ডের মনটা হিংসায় ভরে দিতে তার বন্ধু বা অন্য ছেলের সঙ্গে খুনসুটি করতে হয়। এর মাধ্যমে তারা বয়ফ্রেন্ডের মনোযোগ কাড়তে চান। কিন্তু এতে করে আপনার সম্পর্কে যে তার বাজে ধারণা সৃষ্টি হতে পারে, তা কি ভেবে দেখেছেন? এমন স্বভাবের মেয়েদের কোনো ছেলেই ভালোবাসতে চান না। কাজেই তার মনোযোগ কাড়তে গিয়ে নিজের ব্যক্তিত্বকে খাটো করবেন না।
৩. ঠিক না থাকলেও বলা ‘আমার কিছু হয়নি’ : হয়তো কোন বিষয় নিয়ে মনটা ভালো নেই আপনার। হয়তো প্রেমিকের সঙ্গেই টুকটাক ঝামেলা হয়েছে। প্রেমিক হয়তো বুঝতেও পারছেন সমস্যাটা। কিন্তু তিনি জিজ্ঞাসা করতেই পারেন, কি হয়েছে? এই প্রশ্নের জবাবে সবসময় ‘কিছুই হয়নি’ বলাটা উচিত নয়। এই জবাব দিয়ে দুজনের মাঝের যুদ্ধটা আরো এগিয়ে নেওয়ার ঘোষণা দেওয়া হয়।
৪. মেজাজ খারাপ করা প্রশ্ন : আলাপচারিতায়  কিছু রোমান্টিক প্রশ্ন করতেই পারেন আপনি। যেমন- পৃথিবীর সবচেয়ে সুন্দর জিনিসটা নেওয়ার সুযোগ যদি তোমাকে দেওয়া হয়, তবে আমার জন্যে তুমি কি নেবে? এসব প্রশ্ন ততক্ষণই ভালো কিছু বয়ে আনে যতক্ষণ এতে উদ্দেশ্যমূলক কিছু না জুড়ে দেওয়া হয়। আপনি যদি বলে বসেন, আমি মারা যাওয়ার পর কোন বান্ধবীকে তুমি বেছে নেবে? এই প্রশ্নটি নিশ্চয়ই আপনার সুন্দর মনের পরিচয় দেয় না। এসব প্রশ্ন নিয়ে কথোপকথন কখনোই ভালো পরিস্থিতি দিয়ে শেষ হয় না। কাজেই এসব থেকে দূরে থাকুন।
৫. তার সিদ্ধান্তে সন্দেহ প্রকাশ : আপনাকে ডিনারে কোথাও নিয়ে যেতে চাইলেন তিনি। বললেন, কোন রেস্টুরেন্টে যেতে চাও? পছন্দের কিছু থাকলে বলুন। আর যদি বাছাইয়ের দায়িত্ব তার ওপর ছেড়ে দেন, তো তিনি যেখানে নিয়ে যেতে চাইবেন সেখানেই খুশী থাকুন। কিন্তু তার ওপর দায়িত্ব দেওয়ার পরও যদি সিদ্ধান্ত নিয়ে সন্দেহ প্রকাশ করতে থাকেন, তবে তা ভালো কিছু বয়ে আনবে না।
৬. নিজের সম্পর্কে কৌশলী প্রশ্ন : কোনো পোশাকে আপনাকে সুন্দর দেখাচ্ছে। বয়ফ্রেন্ড বলবেন যে আপনাকে দারুণ লাগছে। কিন্তু সুন্দরী কাউকে দেখিয়ে বললেন, আপনাকে ভালো লাগছে নাকি তাকে? এসব প্রশ্ন ছেলেরা একদমই পছন্দ করেন না। যতি সত্যিটা বলেন যে, আপনাকে ভালো লাগছে না তাহলে আপনি চটে যাবেন। আবার মিথ্যা বলতেই তার ভালো নাও লাগতে পারে।
৭. এলোমেলো সংকেত : কাউকে যদি ভালো লাগে, তবে তার কাছে পরিষ্কার থাকুন। যদি ঘোলাটে করতে চান, বিষয়টি ভালোর দিকে যাবে না। যদি ছেলেটি সরাসরি এ বিষয়ে কথা বলতে আসেন, তবে তিনি ভুল বুঝেছেন বলে অযথাই তাকে অস্বস্তিতে ফেলবেন না। এগুলো ছেলেদের মনে ভুল ধারণা তৈরি করে।

 

Share This Post

Post Comment