ডিম ও ডিমের কুসুমের ‘স্বাস্থ্যঝুঁকি’র সত্য-মিথ্যা

ডিম ও ডিমের কুসুমের ‘স্বাস্থ্যঝুঁকি’র সত্য-মিথ্যা
বেশ কিছুদিন ধরেই ডিম বিশেষ করে ডিমের কুসুম নিয়ে অনেকেই সন্দেহ করছেন। অভিযোগ রয়েছে এর কোলেস্টেরল মাত্রা স্বাস্থ্যের জন্য ক্ষতিকর।

ডিমের ভেতরে থাকা হলুদ অংশ নিয়ে অনেকেই সন্দিহান। কারণ এতে রয়েছে কোলেস্টেরল, যা হৃদরোগের একটি কারণ। ফলে বহু মানুষ ডিমের কুসুম বাদ দিয়ে খান। এমনকি কিছু রেস্টুরেন্টও তাদের কিছু খাবারে ডিমের কুসুম বাদ দেয়।

তবে বাস্তবে ডিমের কুসুম কি এতো ক্ষতিকর? সাম্প্রতিক এক গবেষণার ফলাফল যদি আপনি শোনেন তাহলে হয়তো ডিমের হলুদ এ অংশটি আর ফেলবেন না। কারণ গবেষণায় উঠে এসেছে প্রতিদিন একটি করে ডিম খেলে ডিমের কুসুমের কোলেস্টেরল আপনার ক্ষতি করবে না।
ব্রিটিশ জার্নাল অফ মেডিসিন ২০১৩ সালের জানুয়ারিতে একটি গবেষণা রিপোর্ট প্রকাশ করে। এতে ৩০ বছর ধরে করা ১৭টি গবেষণার ফলাফল একত্রিত করা হয়।
গবেষণার ফলাফলে বিজ্ঞানীরা জানান, ‘প্রতিদিন একটি করে ডিম খাওয়ার সঙ্গে হৃদরোগ ও স্ট্রোকের সম্পর্ক নেই।’

তবে গবেষকরা পাশাপাশি এও জানিয়েছেন যে, ডিমের কুসুমে কোলেস্টেরল আছে। আর এটি বেশি খেলে তা ক্ষতির কারণ হতে পারে।
নিউ ইয়র্কের রেজিস্টার্ড ডায়েটেশিয়ান মারিয়া বেলা জানান, ডিম খাওয়ার অনেক উপকারিতা আছে। এতে আছে ভিটামিন, ফলিক অ্যাসিড, ক্লোরিন, বায়োটিন ও লুটেইন। আর ডিমের অধিকাংশ পুষ্টি উপাদানই রয়েছে কুসুমে। তিনি বলেন, ‘খুব কম খাবারেই একটি ডিমের মতো বহুমুখী পুষ্টি উপাদান আছে।

Share This Post

Post Comment