ঘুমের সমস্যা দূর করার ১৫ উপায়……..?

ঘুমের সমস্যা দূর করার ১৫ উপায়……..?

অনেকেই রাতে ঘুম না আসার সমস্যায় ভুগে থাকেন। আর এই সমস্যার ফলে সৃষ্টি হয় দীর্ঘস্থায়ী ব্যথার, আর হতাশার।

যার কারনে ধীরে ধীরে অসুস্থ হয়ে পরে আপনার শরীর এবং মস্তিষ্ক দুটোই। রাতের ঘুম না আসার সমস্যা দূর করতে ১৫ টি উপায় অবলম্বন করতে পারেন, এতে করে আপনার সমস্যা কিছুটা হলে দূর হবে-

১। প্রতিদিন একই সময়ে ঘুমুতে যান :
প্রতিদিন একই সময়ে বিছানায় যাওয়ার অভ্যাস গড়ে তুলুন। হাতের যত কাজ আছে তা ওই সময়ের মধ্যে শেষ করে ফেলুন, এতে করে আপনার ঘুমুনোর অভ্যাস হয়ে যাবে। এই সময়টা ছুটির দিনগুলোতেও মেনে চলুন।

২। বিছানার সঠিক ব্যবহার :
বিছানা ঘুমানো ছাড়া অন্য কাজে ব্যবহার করবেন না। এতে করে ঘুমুতে গেলে আপনার ঘুমের বিগ্নতা ঘটবে। তাই চেষ্টা করবেন বিছানায় অন্য কোন কাজ না করার।

৩। সঠিক চাঁদর ব্যবহার করবেন :
বিছানার চাঁদর যদি ভাল না হয় অথবা আরাম দায়ক না হয় তবে তো আর কথাই নেই আপনার ঘুম আসা তো দূরে থাক বিছানায় শুয়েও আরাম পাবেন না। তাই চেষ্টা করবেন বিছানার চাঁদরটা যাতে আরাম দায়ক হয়।

৪। ধূমপান ত্যাগ করুন :
আপনার ঘুম না আসার আর একটি অন্যতম কারণ হল ধূমপান করা। ধূমপানের ফলে আপনার শরীরে নিকোটিনের পরিমান বেড়ে যায়, যার কারনে রাতের বেলায় আপনার ঘুমে সেটি অনেক বড় সমস্যা হয়ে উঠে, তাই যত তাড়াতাড়ি সম্ভব ছেড়ে দিন ধূমপান।

৫। ব্যয়াম করুন :
ব্যয়াম করলে আপনার শরীরের পেশী গুলো ক্লান্ত হয়ে যায় যার কারনে আপনার ঘুমের সমস্যা দূর হয়ে যায়। রাতে ঘুমুনোর আগে অন্তত ৩০ মিনিট ব্যয়াম করা উচিত, তাহলে রাতে ভালই ঘুম হবে।

৬। সীমিত পরিমানে ক্যফেইন :
ক্লান্তি দূর করতে এক কাপ কফি ঠিক যেন যাদুর মতো কাজ করে তাই না? কিন্তু এই অতিরিক্ত কফি খাওয়ার ফলেই রাতে আপনার ঘুমের সমস্যা হয়। তাই চেষ্টা করুন কফি খাওয়া সীমিত করে ফেলতে।

৭। বাহিরে যান :
সূর্যের আলো আপনার শরীরে মেল্টন ব্যালেন্স করে, যা রাতে আপনাকে তাড়াতাড়ি ঘুমুতে সাহায্য করে। তাই সময় করে একটু বেড়িয়ে আসুন।

৮। সঠিক খাবার খান :
খাবারের বেলায় উচ্চ মানের ম্যাগনেসিয়াম যুক্ত খাবার খান, যেমন বাদাম। ভিটামিন বি কমপ্লেক্স যুক্ত খাবার খান। সবুজ শাক সবজি বেশি করে খান।

৯। ঘুমাবার আগে ভারি খাবার ত্যাগ করুন :
ঘুমুতে যাওয়ার আগে ভারি খাবার খাওয়া একদম উচিত না, এটি আপনার ঘুমের ক্ষেত্রে অনেক সমস্যা তৈরি করে। তাই চেষ্টা করবেন হালকা খাবার খাওয়ার।

১০। নিভু আলোর অভ্যাস করুন :
বেডরুমে ডীম লাইটের ব্যবস্থা করুন। আপনার ঘুমের সময় যদি রুমে অনেক পরিমাণের আলো থাকে তাহলে আপনার চোখে সেটি সরাসরি প্রভাব ফেলে, যার কারনে আপনার ঘুমের ক্ষতি হয়।

১১। মস্তিষ্ক ব্যবহার করবেন না :
ঘুমুতে যাওয়ার আগে বেশি চিন্তা না করাই ভাল। কোন গোয়েন্দা মুলক নাটক, বা বই না পড়া। কঠিন অংক না করা। মোট কথা ঘুমুতে যাওয়ার আগে আপনার মস্তিষ্কের উপরে চাপ পরে এমন কোন কাজ করবেন না।

১২। ঘুম আসলেই ঘুমুতে যান :
যতক্ষণ না আপনার ঘুম আসবে ততক্ষণ ঘুমাবার চেষ্টা করবেন না। এতে উল্টোটাই ঘটবে, আপনার ঘুম আসবে না, বরং ঘুম দৌড়ে পালাবে।

১৩। গরম পানি দিয়ে গোসল করুন :
ঘুমাবার আগেয় চেষ্টা করুন হালকা গরম পানি দিয়ে গোসল করে নিতে, এতে আপনি ফ্রেশ বোধ করবেন এবং আপনার ঘুমও চলে আসবে।

১৪। উল্টো গুনুন :
শুনেই কেমন হাসি পাচ্ছে তাইনা? উল্টোভাবে ১০০-১ পর্যন্ত গুনুন এতে ঘুম চলে আসবে । কিন্তু মাঝে মাঝেই এই পদ্ধতিটা কাজে লাগে, একবার চেষ্টা করেই দেখুন ফল পেতেও পারেন।

১৫। পায়ের ব্যায়াম করুন :
ঘুমানোর আগে পায়ের ব্যায়াম করে নিন এতে করে আপনার মস্তিষ্ক ঠাণ্ডা হবে এবং সপ্নের দুনিয়ায় হারিয়ে যেতে সুবিধা হবে। ঘুম আমাদের জীবনে অনেক বেশি জরুরি। কিন্তু সেই ঘুমই যদি আমাদের ফাকি দেয়, তাহলে তো জীবন অসহনীয় হয়ে উঠবে।

Share This Post

Post Comment