মাথার ‘মস্তিস্ক’ ভাল রাখতে চাইলে ?

মাথার ‘মস্তিস্ক’ ভাল রাখতে চাইলে ?
প্রধান উদ্দেশ্য একটাই একটি অঙ্গ মস্তিস্ক ঠিক থাকলে পুরো দেহ ঠিক থাকে। কিন্তু প্রায় সময় কাজের চাপে মাথাটা ঠিক ভালভাবে কাজ করতে চায় না। কী করবেন তখন। এমন সময় যদি অাপনি বাইরে প্রচুর ঘোরাঘুরি করেন আর প্রচুর পরিমাণে সামুদ্রিক মাছ খান। ব্যাস, আপনার জন্য অপেক্ষা করছে তেলেসমাতি।

চিল্ডেন’স হসপিটাল ওকল্যান্ড রিসার্চ ইন্সটিটিউটের সাম্প্রতিক এক গবেষণা বলছে সে কথাই। সূর্যালোক পেলে ত্বক ভিটামিন ডি উৎপন্ন করে। এ ভিটামিন ডি আর সামুদ্রিক মাছ থেকে পাওয়া ওমেগা-থ্রি মস্তিষ্কে সেরোটোনিনের মাত্রা বাড়িয়ে দেয়। এ সেরোটোনিন শারীরিক কর্মকাণ্ড ও মস্তিষ্কের কর্মক্ষমতা বাড়ায়। বাড়ায় নানা রোগের প্রতিরোধ ও প্রতিষেধক ক্ষমতা।

অটিজম স্পেকট্রাম ডিসঅর্ডার (এএসডি), অ্যাটেনশনে ডেফিসিট হাইপারেকটিভ ডিসঅর্ডার (এডিএইচডি), বাইপোলার ডিসঅর্ডার, সিজোফ্রেনিয়া এবং ডিপ্রেশন- এমন অসুখ তখনই শরীরে বাসা বাঁধে যখন মস্তিষ্কে সেরোটোনিনের মাত্রা কমে যায়।

গবেষক রোহান্ডা প্যাটরিক বলেন, ভিটামিন ডি এবং ওমেগা-থ্রি ফ্যাটি অ্যাসিডের সঙ্গে সেরোটোনিন উৎপাদনের সম্পর্ক রয়েছে। এসব মাইক্রো-নিউট্রিয়েন্টস মস্তিষ্ক কার্যক্ষম করে এবং আমাদের আচরণে প্রভাব ফেলে। মস্তিষ্ক গঠন, সামাজিক যোগাযোগ এবং সিদ্ধান্ত গ্রহণে সাহায্য করে।

Share This Post

Post Comment