সরকারের সাইবার নিরাপত্তায় বাংলাদেশি হ্যাকার গ্রুপ

সরকারের সাইবার নিরাপত্তায় বাংলাদেশি হ্যাকার গ্রুপ

নাগরিক সেবায় সরকারের বিভিন্ন ই-পোর্টাল ও দাপ্তরিক ওয়েবসাইটের নিরাপত্তা ক্রুটি খুঁজে দেবে বাংলাদেশের হ্যাকাররা। সাইবার নিরাপত্তায় বিভিন্ন উদ্যোগের পাশাপাশি এরআগে সরকারের বিভিন্ন প্রশাসনিক উইং, বিভিন্ন দপ্তরের আইটি বিভাগের কর্মকর্তাদের ইথিক্যাল হ্যাকিংয়ের প্রশিক্ষণ দেয়া হয়েছিল। আর এবারই প্রথম বাংলাদেশি হ্যাকারদের নিজেদের সাইবার নিরাপত্তায় কাজে লাগাতে যাচ্ছে সরকার।

রোববার সরকারের লিভারেজিং আইসিটি ফর গ্রোথ,এমপ্লয়মেন্ট অ্যান্ড গভর্ন্যান্স (এলআইসিটি) বাংলাদেশের হ্যাকার গ্রুপ সাইবার ৭১ এর প্রতিনিধিদের সাথে এক বৈঠক করে। আর এই বৈঠকের মধ্য দিয়ে বাংলাদেশে সাইবার নিরাপত্তায় প্রথম সরকারি কোন উদ্যোগে হ্যাকারদের কাজে লাগোনোর প্রক্রিয়া শুরু হলো।

hacking

এলআইসিটি প্রকল্পের কম্পোনেন্ট টিম লিডার ফখরুজ জামান জানান, দেশের সাইবার নিরাপত্তায় এরআগে সরকারেরর বিভিন্ন সংস্থাসহ আইটি বিভাগের অনেককেই প্রশিক্ষণ দেয়া হয়েছে। এবার ইথিক্যাল হ্যাকিংয়ে দেশীয় মেধা কাজে লাগাচ্ছি আমরা।

বাংলাদেশি হ্যাকার গ্রুপ সাইবার ৭১ এর সাথে বৈঠকে কথা জানিয়ে তিনি বলেন, প্রাথমিকভাবে তাদেরকে ন্যাশনাল ওয়েব পোর্টালের সিকিউরিটি বাগ খোঁজার কথা বলা হয়েছে।

সরকারি উৎসাহে দেশের জন্য কাজ করার সুযোগ পেয়ে উচ্ছ্বসিত সাইবার ৭১ এর সদস্য তানজিম আল ফাহিমতামজিদ রহমান লিও জানান, তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগের সাথে আমাদের বিশেষ এক বৈঠকের ব্যবস্থা করা হয়েছিল।

সাইবার ৭১ দেশের জন্য কাজ করে সরকারি কর্মকর্তাদের এমন মনোভাবের কথা উল্লেখ করে তারা বলেন,কোন পারিশ্রমিক ছাড়াই শুধুমাত্র দেশের সাইবার স্পেসের নিরাপত্তা ও উন্নয়নের জন্য আমরা কাজ করার ব্যাপারে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত জানিয়েছি।

হ্যাকার গ্রুপটির দুই প্রতিনিধি জানান, প্রাথমিকভাবে জাতীয় ওয়েব পোর্টাল নিয়ে কাজ করতে বলা হয়েছে আমাদের।

সম্প্রতি ডিজিটাল ওয়ার্ল্ডে হ্যাকিং কি? হ্যাকার কারা? বিভিন্ন ধরনের হ্যাকিং, ইথিক্যাল হ্যাকিং, হ্যাকিংয়ের পার্থক্যসহ সাইবার নিরাপত্তার বিভিন্ন বিষয় নিয়ে ‘রিবুট: দ্যা ইথিক্যাল হ্যাকিং কনফারেন্স’ অনুষ্ঠিত হয় ।

কনফারেন্সে পিবিআই সাইবার ক্রাইম ইনভেস্টিগেশন ইউনিটের অতিরিক্ত পুলিশ প্রধান (এএসপি) মুহাম্মাদ সিরাজ আমিন বলেন, হ্যাকিং অসাধারণ একটি জ্ঞান, এটিকে খারাপ কাজে না লাগিয়ে ভালো কাজে ব্যবহার করলে আইন সংস্থাগুলো থেকেও কোনো বাধা আসবে না। ফলে সবাই হ্যাকারদের ভালো চোখে দেখবে।.

Share This Post

Post Comment