ওয়াক্সিং-শেইভিংয়ের আগে পরে ত্বকের যত্ন”

ওয়াক্সিং এবং শেইভিংয়ের কারণে ত্বকের ক্ষতি হয় ও ত্বক শুষ্ক হয়ে যায়। তাই বাড়তি যত্নের প্রয়োজন হয়।বিশেষ করে পায়ের লোম দূর করতে শেইভ করা হলে প্রথমে পায়ের ত্বক কোমল মনে হলেও একদিন পরেই ত্বক শুষ্ক হয়ে যেতে পারে। তাই ত্বক দীর্ঘদিন সুন্দর রাখতে চাইলে শেইভের আগে এবং পরে কিছু বিশেষ যত্ন প্রয়োজন।

রূপচর্চাবিষয়ক একটি ওয়েবসাইটে এ বিষয়ে একটি প্রতিবেদন প্রকাশ করা হয়। সেখানে পায়ের যত্নে করণীয় কিছু বিষয় উল্লেখ করা হয়।

ত্বক এক্সফলিয়েট করা

পায়ের লোম শেইভের আগে স্ক্রাবার দিয়ে পা ভালোভাবে স্ক্রাব করে নিতে হবে। ফলে কোন ধরনের মৃত কোষ থাকলে তা উঠে আসবে। অনেক সময় মরা কোষের নিচেও ছোট ছোট লোম হয়ে থাকে। স্ক্রাব করার ফলে মৃত কোষ উঠে যায় ফলে লোম ভালোভাবে পরিষ্কার হয়ে যাবে।

ভালো রেইজার ব্যবহার

পায়ের লোম পরিষ্কার করতে ভালো মানের রেইজার ব্যবহার করা উচিত। নিম্নমানের রেজার ব্যবহার করলে নিখুঁতভাবে লোম কাটবে না এবং ত্বকেরও ক্ষতি হবে। এখন বাজারে মেয়েদের জন্য বিশেষভাবে তৈরি রেইজার পাওয়া যায় সেখান থেকে নিজের ত্বকের জন্য উপযোগী রেইজার বেছে নিতে হবে।

উল্টাদিকে শেইভ করা

লোম যেদিকে বড় হয় তার উল্টাদিকে শেইভ করা হলে শেইভিং সব থেকে নিখুঁত হয়। কারণ এতে করে একদম গোড়া থেকে শেইভ করা সম্ভব হবে।

শেইভিংয়ের পর ময়েশ্চারাইজার ব্যবহার

শেইভ করার পর ভেজা পায়ে বেশি করে ময়েশ্চারাইজার ব্যবহার করতে হবে। এতে ত্বক ভিতর থেকে ময়েশ্চারাইজ হবে।

শেইভিংয়ের পর পায়ের বাড়তি যত্নে বিষয়ে কথা বলেন ফারজানা শাকিল’স মেইকওভার সেলুনের কর্ণধার ফারজানা শাকিল।

তিনি বলেন, “শেইভ করলে লোমের গোড়া থেকে কেটে আনা হয়, ত্বকে লোমের গোড়াগুলো থেকে যাওয়ার কারণে ত্বক খড়খড়ে মনে হয়। তাই ত্বক কোমল করতে ‘প্যাক’ ব্যবহার ও ময়েশ্চারাইজার ব্যবহার করা খুবই জরুরি।

লোম কেটে ফেলার পর পায়ে লাগানোর জন্য একটি প্যাক তৈরির প্রণালী জানান ফারজানা শাকিল।

মুলতানি মাটি, চন্দনের গুঁড়া, পাকা কলা ও মধু পরিমাণ মতো পানি বা গোলাপ জলের সঙ্গে মিশিয়ে পেস্ট তৈরি করতে হবে। শেইভ করার পর পুরো পায়ে এই মিশ্রণ লাগিয়ে ১৫ থেকে ২০ মিনিট অপেক্ষা করতে হবে। মিশ্রণটি শুকিয়ে গেলে হালকা গরম পানিতে একটি নরম তোয়ালে ভিজিয়ে সেটা দিয়ে মিশ্রণটি ঘষে তুলে ফেলতে হবে।

এরপর পা মুছে পানিতে গ্লিসারিন মিশিয়ে পায়ে মাখতে হবে। অথবা ভালো মানের ময়েশ্চারাইজার লোশন বা ক্রিম ব্যবহার করতে হবে।

এই প্যাক ব্যবহারে পায়ের ত্বকের শুষ্কভাব দূর হবে এবং ত্বকও সুন্দর হবে।

Share This Post

Post Comment