মেকআপের আগে-পরে…

মেকআপের আগে-পরে…

মেকআপের আগে-পরে!

ত্বকের নানা রকম খুঁত ঢাকতে হরহামেশাই মেকআপ করা হয়। বিভিন্ন উৎসব-পার্বণেও সাজতে হচ্ছে। তবে অনেক দিন ধরে চড়া মেকআপ করতে করতে ত্বকের কিছুটা ক্ষতি হয়েই যায়। এই ক্ষতি পুষিয়েও নেওয়া যেতে পারে, তবে তা লম্বা সময়ের ব্যাপার। তাই ত্বক রুক্ষ নিস্তেজ হওয়ার আগেই নিয়মকানুন জেনে সেভাবে মেকআপ করা ভালো।
ত্বকের নিচেই চর্বির যে স্তর থাকে তা গরমে গলে লোমকূপ দিয়ে বের হয়ে আসে। মেকআপ করতে প্রথমে কনসিলার, কমপ্যাক্ট পাউডার, ব্লাশন দিয়ে মুখের ওপর কয়েকটা পরত দিয়ে ঢেকে যায়। এই মেকআপ ভালোমতো না তুললে লোমকূপের গোড়া বন্ধ হয়ে যাওয়ায় ঘাম বের হয়ে আসতে পারে না। মেকআপ আর নানা রকম জীবাণু ও ময়লা লোমকূপের গোড়ায় জমে থাকার ফলে দেখা দেয় ব্রণ ও ফুসকুড়ি।
রূপবিশেষজ্ঞ শারমিন কচি মনে করেন, এ ধরনের সমস্যা ঠেকাতে প্রতিকারের আগে প্রতিরোধ দরকার। তাই সবার আগে প্রয়োজন ত্বকের নিয়মিত যত্ন নেওয়া। এই যত্ন নেওয়ার মধ্যে সঠিক উপায়ে মেকআপ করা এবং তা তুলে ফেলা অন্তর্ভুক্ত। যেমন মুখে শুধু কনসিলার দিয়ে তার ওপর কমপ্যাক্ট পাউডার বা ওপরে অন্য কোনো স্তর ব্যবহার না করে সরাসরি সূর্যের আলোর নিচে গেলে ত্বক পুড়ে যেতে পারে। তাই বেশ মেকআপ কী কী ব্যবহার করতে হবে এবং কোনটির পর কোনটি লাগানো উচিত তাও জেনে নেওয়া প্রয়োজন। হালকা বেস করলে চাইলে সবার আগে মুখ ভালোমতো ধুয়ে ময়েশ্চারাইজার মেখে কিছুক্ষণ অপেক্ষা করে শুধু কমপ্যাক্ট পাউডার লাগাতে পারেন। মুখের কোনো খুঁত ঢাকতে চাইলে সেখানে পাউডার ব্যবহারের আগেই লাগিয়ে নিতে হবে কনসিলার অথবা প্যানকেক। এতে এই বেস ভারী হয়ে যাবে, তখন তার ওপর বুলিয়ে নিতে পারেন ব্লাশন।
আজকাল বাজারে বিবি ক্রিম অথবা একধরনের কমপ্যাক্ট পাওয়া যাচ্ছে, যা ব্যবহার করলে আলাদা করে অনেক কিছু ব্যবহার করার প্রয়োজন নেই। ত্বকে যাঁদের কোনো দাগ নেই তাঁরা হালকা একটু পাউডার পাফ করে গালে ব্লাশন বুলিয়ে নিলেই বাড়তি মেকআপের প্রয়োজন পড়ে না।
মডেল ও অভিনেত্রী সুজানা জাফর শুটিংয়ের প্রয়োজনে মাঝে মাঝে চড়া মেকআপ নিয়ে থাকেন। খুব দরকার না হলে সে ভারী মেকআপ এড়িয়ে যান বলে জানালেন। মেকআপ ভারী হলে অলিভ অয়েল দিয়ে মুখে কিছুক্ষণ মালিশ করে মেকআপ ওঠান। এরপর ব্যবহার করেন ক্লেনজার এবং ময়েশ্চারাইজার। এই নিয়ম পালনে কখনো গাফিলতি নেই তাঁর, জানালেন তিনি। এ ছাড়া তিনি মনে করেন ত্বকের ওপর দিয়ে যাদের অতিরিক্ত ধকল যায় তাদের ত্বকের বাহ্যিক যত্ন নেওয়ার পাশাপাশি প্রচুর পরিমাণে পানি, শাকসবজি ও ফলমূল খাওয়া উচিত।
রূপবিশেষজ্ঞরা মনে করেন, পারতপক্ষে ত্বকের ওপর অতিরিক্ত মেকআপ না করে চোখ আর ঠোঁটকে সুন্দর করে সাজালেই জমকালো দেখাবে। হালফ্যাশনে গাঢ় রঙের লিপস্টিকের চল এসেছে, এর সঙ্গে চোখ দুটোকে ঘন মাসকারা এবং কাজল ও ক্রিম আইশ্যাডো দিয়ে সাজালেই হয়ে যাবে পার্টি সাজ।
এটা তো গেল কীভাবে কম মেকআপে কাজ সারবেন সেই উপায়। এবার জেনে নিন মেকআপ কীভাবে তুলবেন সেই পরামর্শ। মেকআপ তোলার ক্ষেত্রে কোনো আলসেমি বা তাড়াহুড়া করা যাবে না। মেকআপ হালকা হোক বা চড়া তুলতে হবে খুব ভালোমতো। মেকআপ তোলার ধাপগুলো সেভাবে অনুসরণ করবেন। পরিষ্কার তুলা বা নরম কাপড়ে অলিভ অয়েল, বেবি অয়েল বা অয়েল বেজ মেকআপ রিমুভার দিয়ে ওপর থেকে নিচের দিকে হালকা ঘষে মেকআপ তুলতে হবে। ভালোভাবে মুছতে গেলে জোরে ঘষতে হবে, এই ধারণা সম্পূর্ণ ভুল। তুলায় যখন আর কোনো মেকআপ উঠে আসবে না তখন বুঝতে হবে মেকআপ ভালোমতো মুছে গেছে।

Share This Post

Post Comment