কপালে ব্রণ হওয়ার সমস্যা থেকে মুক্তির উপায়…

কপালে ব্রণ হওয়ার সমস্যা থেকে মুক্তির উপায়…
কপালে ব্রণ হওয়ার সমস্যা থেকে মুক্তির উপায়...

 

কপালে ব্রণ উঠার সমস্যায় ভুগতে দেখা যায় অনেককেই। সকলের মতে ত্বকে ব্রণ উঠার মতোই এটি বেশ সাধারণ একটি ব্যাপার।

কিন্তু কপালে ব্রণ উঠার অন্য ধরণের বেশ কিছু কারণ রয়েছে যার মধ্যে খুশকি, মাথার ত্বকের তৈলাক্ততা, হজমে সমস্যা, অতিরিক্ত মানসিক চাপ, চুলে ব্যবহার্য প্রোডাক্ট, ক্যাপ বা স্কার্ফ বা হেলমেট ধরণের কিছু পরা ইত্যাদি অন্যতম।

তাই কপালে ব্রণ সমস্যা দূর করতে হলে ব্রণ হওয়ার কারণ দূর করা অনেক জরুরী। আজকে জেনে নিন কপালে ব্রণ উঠা সমস্যার কিছু কার্যকরী সমাধান।

১) লেবুর রসের ব্যবহার
ব্রণ সমস্যা থেকে মুক্তি পেতে চাইলে লেবুর রসের চাইতে সহজ সমাধান অন্য কোথাও নেই। কয়েক ফোঁটা লেবুর রসই কপালের ব্রণের সমস্যা থেকে মুক্তি দিতে সক্ষম যদি আপনি নিয়মিত ব্যবহার করে যেতে পারেন। রাতে ঘুমুতে যাওয়ার আগে তাজা লেবুর রস ব্রণের উপরে লাগিয়ে ঘুমিয়ে যান।

সকালে ত্বক ভালো করে ধুয়ে নিন। লেবুর সাইট্রিক অ্যাসিড ব্যাকটেরিয়া জনিত ব্রণ সমস্যার সমাধান করবে, এছাড়াও লেবু তৈলাক্ততা দূর করতে কার্যকরী বলে তৈলাক্ত মাথার ত্বকের কারণে ব্রণ হওয়ার সমস্যা সমাধান করবে। তবে আপনার ত্বক লেবুর কারণে অ্যালার্জি প্রবণ হয় তাহলে ব্যবহার না করাই ভালো’।

২) সরিষা গুঁড়ো ও মধুর ব্যবহার
যদি এক রাতের মধ্যে কপালের এই বিরক্তিকর ব্রণ দূর করতে চান তাহলে খুব ভালো উপায় হচ্ছে সরিষাগুঁড়ো। সরিষাগুঁড়োতে রয়েছে স্যালিসাইলিক এসিড যা খবুই কার্যকরী ব্রণ সমস্যা সমাধানে।

কিছু সরিষা দানা নিয়ে গুঁড়ো করে এতে মধু ভালো করে মিশিয়ে প্যাক তৈরি করে নিন। এই প্যাক ১৫ মিনিট লাগিয়ে রাখুন ব্রণের উপরে। ১৫ মিনিট পর ধুয়ে নিন এবং ঘুমুতে চলে যান। সকালে ব্রণের ফোলাভাব অনেকটা কমতে দেখবেন।

৩) টমেটোর ব্যবহার
কপালের ব্রণ সমস্যা সমাধানে টমেটোও অনেক কার্যকরী। এর জন্য আপনাকে কিছুই করতে হবে না, শুধুমাত্র একটি টমেটো কেটে স্লাইস করে নিয়ে, একটি স্লাইস দিয়ে ব্রণের উপরটা ঘষে নিন। এভাবে দিনে দুবার করুন। দেখবেন কপালের ব্রণের ঝামেলাটা কিছুদিনের মধ্যেই মিলিয়ে যাবে।

Share This Post

Post Comment