অফিসের পোশাক নির্বাচনে ১০টি টিপস

অফিসের পোশাক নির্বাচনে ১০টি টিপস

কর্মক্ষেত্রে কী পরে এসেছেন আপনি? যা পরেছেন তা কি কর্মক্ষেত্রে পরার উচিত? নাকি আপনার পোশাকটি একেবারেই বেমানান আপনার কর্মক্ষেত্রের সাথে!

অনেকেই বোঝেন না কর্মক্ষেত্রে কী পরা উচিত আর কী পরা উচিত নয়। বিশেষ করে যেসব অফিসে ড্রেস কোড ঠিক করে দেয়া নেই সেই সব অফিসে পোশাক নিয়ে নানান রকম বিশৃঙ্খলা দেখা দেয়। অনেকেই অনেক বেমানান পোশাক পরে আসেন যা অফিসের ভাবমূর্তি ক্ষুণ্ণ করে। আবার অনেকে একেবারে আনস্মার্ট পোশাক পরে অফিসে আসেন যা একেবারেই অনুচিত।
অফিসে কী পরা উচিত আর কী পরা উচিত না সেই সম্পর্কে জেনে নিন ১০টি টিপস।

১) অফিসে ফরমাল শার্ট পরাই ভালো। টি শার্ট পরে অফিসে আসতে চাইলে অবশ্যই কলার যুক্ত টি শার্ট পরা উচিত। গোল গলার টি শার্ট অফিসে খুবই বেমানান দেখায়।

২) অফিসের প্যান্ট সবসময় ফরমাল হওয়া উচিত। খুব বেশি ভিন্ন ধরনের কাট ছাঁটের ইনফরমাল প্যান্ট অফিসে না পরাই ভালো।

৩) পুরুষদের ক্ষেত্রে পোশাকের রঙ নির্বাচন করুন হালকা মার্জিত রঙ থেকে। খুব বেশি কড়া রঙ এর দৃষ্টিকটু পোশাক না পরাই ভালো অফিসে।

৪) নারীরা অফিসে পোশাক পরিধানের ক্ষেত্রে শালীনতার বিষয়টি মাথায় রাখুন। যেই পোশাকই পরবেন সেটা যেন অফিসের সাথে মানানসই ও শালীন হয় সে বিষয়ে লক্ষ্য রাখুন।

৫)অতিরিক্ত কাজ করা জবরজং পোশাক অফিসে মানানসই না। তাই নারীরা এধরণের পোশাক অফিসে এড়িয়ে চলবেন।

৬) নারীরা অফিসে পরার পোশাকের গলা বড় রাখবেন না। বড় গলার পোশাকের বদলে হাই নেক, কলারযুক্ত কিংবা ছোট গলার পোশাক পরুন।

৭) পুরুষরা অফিসে সু পরুন। অফিসে স্যান্ডেল পরে আসা খুবই বেমানান দেখায়।নারীরা অফিসে এমন জুতা পরুন যেটা হাটার সময় খুব বেশি শব্দ হয় না।

৮) নারীরা অফিসে হাতাকাটা পোশাক পরবেন না। আমাদের দেশের প্রেক্ষাপটে অফিসে হাতাকাটা পোশাক একেবারেই মানানসই না।

৯) নারীরা অফিসে এমন কোনো অলংকার পরবেন না যেগুলোতে শব্দের সৃষ্টি হয়। অলংকারের শব্দ অন্যদের কাজের মনোযোগ নষ্ট করে।

১০) অফিসে কড়া গন্ধের সুগন্ধি ব্যবহার করা উচিত না। হালকা ঘ্রাণের রুচিশীল সুগন্ধি ব্যবহার করুন।

Share This Post

Post Comment

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.