রকমারি স্বাদে মাছ-১ (রেসিপি)।

রকমারি স্বাদে মাছ-১ (রেসিপি)।

মাছের ঝোল আর ভাজা মাছ-এসব তো রোজকার মেন্যু। মাছ দিয়েও তৈরি করা যায় নানা ধরনের কোফতা-কাবাব। তেমনই কয়েকটি পদের রেসিপি থাকছে এখানে।

ফলি মাছের কোফতা

ফলি মাছের কোফতা উপকরণঃ
– ফলি মাছ বাটা (কাঁটা ছাড়িয়ে) ২ কাপ,
– ডিমের সাদা অংশ ৪টা,
– জিরা আধা চা-চামচ,
– কাঁচা মরিচ ২ টেবিল চামচ,
– এলাচি ২ টেবিল চামচ,
– দারুচিনি ১ ইঞ্চি সাইজের ২টা একসঙ্গে বেটে নিতে হবে।
– এরারুট গোলানো ৩ চা-চামচ,
– মরিচ গুঁড়া আধা চা-চামচ,
– আদাবাটা ১ চা-চামচ,
– রসুনবাটা ১ চা-চামচ,
– পেঁয়াজ মিহি কুচি আধা কাপ,
– কাঁচা মরিচ ২ টেবিল চামচ,
– ধনেপাতা কুচি সিকি কাপ,
– পুদিনা কুচি সিকি কাপ ও
– লবণ স্বাদমতো।

প্রণালিঃ
– ফলি মাছের চামড়াটা আস্ত রেখে মাছের কাঁটার দুই পাশ দিয়ে খুব সাবধানে মাছ বের করে নিন।
– এবার চামচ দিয়ে চেঁছে চামড়ার গায়ের কাঁটাগুলো পরিষ্কার করে চামড়াগুলো ধুয়ে নিন।
– এবার একটি পাত্রে বাটা মাছ, ডিমের সাদা অংশ ও এরারুট গোলা দিয়ে ভালো করে এগবিটার দিয়ে বিট করে নিন।
– এবার বাকি সব উপকরণ দিয়ে মেখে নিন।
– চামড়া বিছিয়ে তার অর্ধেকটার মধ্যে পুরু করে পুর বিছিয়ে চামড়ার বাকি অর্ধেক অংশ দিয়ে ঢেকে দিন।
– এবার ফ্রাইপ্যানে সেঁকা তেলে ঢিমা আঁচে ভাজুন।
– আঁশ ভাজা হলে তিন টুকরা করে আবার ভালো করে সোনালি করে ভাজুন,
– চাইলে মসলা কষিয়ে ভাজা কোফতা দিয়ে তরকারিও রান্না করা যায়।

কাবাব ইলিশ

উপকরণঃ
– ইলিশ মাছ সেদ্ধ করে কাঁটা বাছা ২ কাপ,
– আলু সেদ্ধ করে চটকে নেওয়া ১ কাপ,
– লেবুর খোসা কোরানো ১ টেবিল চামচ,
– লেবুর রস ২ টেবিল চামচ,
– পেঁয়াজ বেরেস্তা আধা কাপ,
– কাঁচা মরিচ কুচি ১ টেবিল চামচ,
– টমেটো সস ২ টেবিল চামচ,
– গরমমসলার গুঁড়া আধা চা-চামচ,
– কালো গোলমরিচের গুঁড়া আধা চা-চামচ,
– লবণ স্বাদমতো,
– বিস্কুটের গুঁড়া ১ কাপ,
– সয়াবিন আধা কাপ,
– লেবু ও গাজর সাজানোর জন্য।

কাবাব ইলিশ প্রণালিঃ
– ২ টেবিল চামচ তেল গরম করে বিস্কুটের গুঁড়া লাল করে ভেজে নিন,
– কড়াইয়ে ১ টেবিল চামচ তেল গরম করে অর্ধেক বেরেস্তা ও মরিচ কুচি ভেজে লবণ দিয়ে আলু ছানা দিয়ে ভালো করে ভুনে নিন।
– এবার ১ টেবিল চামচ তেল গরম করে তাতে বাকি বেরেস্তা দিয়ে মাছ দিয়ে ভুনে গোলমরিচ, গরমমসলার গুঁড়া ও সস দিয়ে ভালো করে ভুনে নিন।
– এরপর ভুনা আলু দিয়ে মেশান।
– তাতে তিন-চতুর্থাংশ ভাজা বিস্কুটের গুঁড়া মেশান।
– চুলা বন্ধ করে তাতে লেবুর রস ও লেবুর খোসা মেশান,
– একটি ডিমে পুরো মিশ্রণ মাছের আকারে বসান।
– আগেই ইলিশ মাছের মাথা ও লেজ লবণ-পানিতে সেদ্ধ করে রাখুন।
– সেটা এবার এই মিশ্রণের দুই প্রান্তে লাগিয়ে দিন।
– তুলে রাখা বাকি এক-চতুর্থাংশ বিস্কুটের গুঁড়া এর ওপর চেপে বসিয়ে চামচের মাথা দিয়ে আঁশের নকশা করে এবং চারপাশে লেবু ও গাজর বা চিপস দিয়ে মাখান।

সরষের তেলে নারকেল-কই

উপকরণঃ
– কই মাছ ৬টি,
– সরষের তেল ৪ টেবিল চামচ,
– পেঁয়াজ কুচি সিকি কাপ,
– নারকেলের দুধ ২ কাপ,
– পানি ১ কাপ,
– সাদা সরষেবাটা ৪ টেবিল চামচ,
– লাল সরষেবাটা ১ টেবিল চামচ,
– রসুনবাটা ১ টেবিল চামচ,
– পেঁয়াজবাটা ১ টেবিল চামচ,
– হলুদ গুঁড়া ১ চামচ, চিনি ২ চামচ,
– লবণ স্বাদমতো,
– সাধারণ তেল প্রয়োজনমতো,
– কাঁচা মরিচ ৫টা,
– কালিজিরা ১ চিমটি,
– মেথি ১ চিমটি ও
– পাকা মরিচ ৫টি।

সরষের তেলে নারকেল-কই প্রণালিঃ
– কই মাছের পিঠটা গভীর করে চিরে নিন, যাতে মসলা ঢোকে।
– এবার তাতে লবণ-হলুদ মেখে সয়াবিন তেল দিয়ে হালকা ভেজে নিন।
– একটি পাত্রে নারকেলের দুধ, হলুদ গুঁড়া, রসুনবাটা, পেঁয়াজবাটা, সরষেবাটা, লাল ও সাদা লবণ সব একসঙ্গে মাখান,
– ১ কাপ পানি দিয়ে মেশান এবং তাতে কই মাছগুলো ১ ঘণ্টা ভিজিয়ে রাখুন।
– এবার কড়াইয়ে তেল গরম করে তাতে কালিজিরা, কাঁচা মরিচ ও মেথির ফোড়ন দিন, পেঁয়াজ কুচি দিয়ে ভাজুন।
– মাছগুলো বসিয়ে অর্ধেকটা মসলা ঢেলে দিন ও ১০ মিনিট ঢেকে অল্প আঁচে রান্না করুন।
– ১০ মিনিট পর মাছগুলো উল্টো বাকি মসলা ঢেলে ও পাকা-কাঁচা মরিচ ও চিনি দিয়ে ঢেকে আরও ১০ মিনিট রান্না করুন।
– এবার পরিবেশন করুন।

Share This Post

Post Comment