বিয়ে বাড়ির স্বাদ ঘরের রান্নায় “মুরগীর রোস্ট”।

বিয়ে বাড়ির স্বাদ ঘরের রান্নায় “মুরগীর রোস্ট”।

রেসিপিঃ- মুরগীর রোস্ট
দেশী মুরগী -৫ টা ( ৪ টুকরা করে নেয়া)
টক দ্ই-দেড় কাপ
টমেটো সস- ৩ ভাগের ১ কাপ বা আধা কাপ ( রং টা ভালো আনতে ,সামান বেশী দিতে পারো তবে খুব বেশী দিলে টেস্ট পাল্টে যায়)
পেয়াজ বাটা- ৩ কাপ( মাপার কাপ)
রসুন বাটা-৩টেবিল চামচ
আদা বাটা-৪টেবিল চামচ
টালা ধনিয়া গুড়া- ১ টেবিল চামচ
লাল মরিচ গুড়া-২-৩ চা চমচ বা পছন্দমতো
কাঠ বাদাম বাটা- ৩ টেবিল চামচ( বাটার পরের মাপ)
কিসমিস বাটা- ৩টেবিল চামচ( বাটার পরের মাপ)
পোস্ত দানা বাটা- ২ চা চামচ
কাটা পেয়াজ-১কাপ( বেরেস্তা করে রাখতে হবে)
কাঁচা মরিচ-১০/১৫টা অর্ধেক কাটা বাকিটা আস্ত বা তোমার ইচ্ছা মত
লবন -স্বাদমতো
তেল -১/২কাপ রোস্ট রান্নার জন্য ,ভাজা তেল থেকে নেওয়া যাবে। (আর ভাজার জন্য যতটুকু দরকার সেটা প্রয়োজন মত নিতে হবে)
ঘি-৩/৪কাপ
কেওড়া জল-১ চা চামচ
অনেক ঘন দুধ বা গুড়া দুধ- আধা কাপ
পানি- প্রয়োজন মতো
জর্দার রং- অপশনাল মুরগীতে মেখে ভাজঁতে পারো ( আমি ব্যবহার করি না)

শুকনা মশলা তৈরীঃ
এলাচ-৬টুকরা
দারচিনি-৪ টুকরা( ১ইন্চি মাপের)
লং-৪ টুকরা
গোল মরিচ-১চা চামচ
জায়ফল-১টা
জয়ত্রি-২টুকরা
শাহ জিরা-১চা চামচ
উপরোক্ত মসলা গুলো গুড়া করে নিতে হবে ( পাটায় বা ব্লেন্ডারে করা যাবে)

প্রনালীঃ
১) মুরগী কেটে ধুয়ে পানি ঝড়িয়ে রাখতে হবে।
২)বড় ছড়ানো পাত্রে আগে তেল গরম করে পাত্রটা ঠান্ডা করে নিতে হবে, ননস্টিক হলে ঠান্ডা করার প্রয়োজন নাই।
৩) এই পাত্রে প্রয়োজন মত তেল নিয়ে মুরগীর টুকরা গুলো হাল্কা লাল করে ভেজে নেবে, তবে অতিরিক্ত ভাজলে শক্ত হয়ে যাবে।
৪) মুরগী ভাজা শেষ হয়ে গেলে। এই পাত্র পরিস্কার করে এটাতে রান্না করতে পারো বা অন্য ছড়ানো পাত্রে রান্না করতে পারো।
৫) পাত্রে তেল ও ঘি দিয়ে পেঁয়াজ বাটা দিতে হবে। এবার বেশ অনেক্ষন নাড়তে হবে, যাতে পেয়াজটা লাল লাল হয় তবে পোড়া যেন না লাগে, এবার একে একে, আদা বাটা, রসুন বাটা, মরিচ গুড়া, টালা ধনিয়া গুড়া, দিয়ে নেড়ে নেড়ে কষাতে হবে অল্প জ্বালে, ১/২ কাপের মত পানি দিয়ে আরো কষাতে হবে।এবার টক দ্ই , বাদাম বাটা ,কিসমিস বাটা, পোস্ত দানা বাটা,শুকনা মসলা গুড়ো ও লবন দিয়ে কষিয়ে নিতে হবে। এবার মুরগীর টুকরা গুলো দিয়ে নেড়ে চেড়ে প্রয়োজন মত পানি দিতে হবে ( ডুবো পানি দেয়া যাবে না) এবার ঢাকনা দিয়ে রাখতে হবে, মাঝে মাঝে নেড়ে দিতে হবে তবে খুব সাবধানে এবং বেশী নাড়াচাড়া যাবে না,
৬)মুরগীর মাংস সিদ্ধ হলে মাংসের টুকরা উঠিয়ে রাখবে( এতে মাংস ভাঙ্গবে না) এবার টমেটো সস, ঘন দুধ, কাটা কাঁচা মরিচ দিয়ে আরো কিছুক্ষন নেড়ে নেড়ে ঝোল ঘন করে নেবে। ঘন হলে মাংস গুলো দিয়ে ২-৩ বার সাবধানে নেড়ে ঝোল মাখাবে মুরগীর রোস্টে।
৭) এবার আস্ত কাঁচা মরিচ ও পেয়াজ বেরেস্তা ছড়িয়ে ও কেওড়া জল এবং কিছু ঘি ছড়িয়ে দিয়ে ঢাকনা দিয়ে ১০ মিনিট দমে রেখে দিতে হবে। নীচে যাতে পোড়া না লাগে সে জন্য একটা তাওয়া দিলে ভালো হবে।

টিপসঃ
১) সসটা বেশী না দেওয়াই ভালো তাহলে আসল স্বাদটাই নষ্ট হয়।
২) মাঝারি থেকে অল্প জ্বালে রান্না করতে হবে।

Share This Post

Post Comment