আজ থেকে ব্যবহার করুন বাংলাদেশি সার্চ ইঞ্জিন

আজ থেকে ব্যবহার করুন বাংলাদেশি সার্চ ইঞ্জিন
যাত্রা শুরু করল “খোঁজ ডট ইনফো” নামের সর্ববৃহৎ বাংলাদেশী সার্চ ইঞ্জিন। নানা ধরনের সার্চ সুবিধা সম্বলিত বাংলাদেশী সার্চ ইঞ্জিনটি সম্পূর্ণ বাংলায় তৈরি। বাংলাদেশী ব্যবহারকারীদের চাহিদাকে মাথায় রেখেই তৈরি করা হয়েছে এই বাংলা সার্চ ইঞ্জিন “খোঁজ ডট ইনফো”। পৃথিবীখ্যাত সার্চ ইঞ্জিন গুগল, ইয়াহু, বিং -এর সার্চ সুবিধা সমূহ মাথায় রেখে শুধুমাত্র বাংলাদেশ ভিত্তিক সার্চ ইঞ্জিন তৈরির লক্ষ্যেই আমাদের যাত্রা। আমাদের উদ্দেশ্য বাংলাদেশের সকল ধরনের তথ্য খোঁজার সুবিধা প্রদান।
সার্চ করুন খোঁজ ডট ইনফো - khoz.info

কি কি সুবিধা আছে বাংলাদেশী সার্চ ইঞ্জিন “খোঁজ ডট ইনফো” -তে?

  • বাংলা এবং ইংরেজি উভয় ভাষার সার্চ রেজাল্ট
  • সন্তুষ্টিপূর্ণ সার্চ রেজাল্ট
  • ছবি বা ইমেজ সার্চ
  • ভিডিও সার্চ
  • মিউজিক সার্চ
  • নিউজ সার্চ
  • টেকনোলোজি পোস্ট সার্চ
  • শিক্ষামূলক তথ্য সার্চ
  • উইকিমিডিয়ার তথ্য সার্চ
  • অ্যাপস সার্চ
  • চাকুরী সার্চ
  • ব্লগ পোস্ট সার্চ
  • ই-বুক সার্চ
  • ডকুমেন্ট সার্চ
  • শপিং সংক্রান্ত তথ্য সার্চ
  • প্রয়োজনীয় সাইটের নেভিগেশন লিংক
বাংলাদেশী সার্চ ইঞ্জিন "খোঁজ ডট ইনফো" - khoz.info
উপরোক্ত ক্যাটাগরির সার্চ সুবিধা নিয়েই বর্তমানে পথ চলা শুরু করেছে “খোঁজ ডট ইনফো”। হরেক রকম সার্চ ক্যাটাগরি ভিত্তিক সার্চ রেজাল্ট সুবিধাই হলো “খোঁজ ডট ইনফো” বাংলা সার্চ ইঞ্জিনের প্রধান বৈশিষ্ট্য। একজন বাংলাদেশী অনলাইন ব্যবহারকারীর সকল চাহিদাকে ভিত্তি করেই সাজানো হয়েছে আমাদের সার্চ ক্যাটাগরিসমূহ। ফলে আপনি সহজেই খুঁজে পাবেন আপনার কাঙ্ক্ষিত তথ্যটি সবচেয়ে কম সময়ে!

কেন ব্যবহার করবেন বাংলাদেশী সার্চ ইঞ্জিন “খোঁজ ডট ইনফো”?

আমরা সকলেই গুগল, ইয়াহু, বিং এর মতো আন্তর্জাতিক সার্চ ইঞ্জিনের উপর নির্ভরশীল। কখনও কি আপনার নিজের দেশের, নিজের ভাষার সার্চ ইঞ্জিন ব্যবহার করার মনমানসিকতা তৈরি করেছেন? জি, এই মনমানসিকতা আমরা এখনও গড়ে তুলতে পারিনি। কিন্তু তাই বলে কি মনমানসিকতা গড়ার চেস্টা করতেও মানা? বাংলাদেশে হাতে গোনা দু-একটি বাংলা সার্চ ইঞ্জিন আছে। আপনি কি সেগুলো ব্যবহার করে তথ্য খুঁজেন। এসব বাংলা সার্চ ইঞ্জিনের হতে পারে সার্চ ক্ষমতা কম। হতে পারে গুগলের চেয়ে হাজার গুন কম ক্ষমতাসম্পন্ন। কিন্তু কখনও কি ভেবেছেন, এর জন্য আমরাই দায়ী? কি অবাক হচ্ছেন? জি, বাংলাদেশের সার্চ ইঞ্জিনগুলোর এ অবস্থার জন্য আমরাই দায়ী। প্রতিটি প্রতিষ্ঠান তাদের পণ্য বা সার্ভিসের উন্নতি সাধন করে তাদের গ্রাহকের চাহিদা ও মতামতের উপর। গুগলের ব্যবহারকারী যতই বৃদ্ধি পায়, গুগল কিন্তু তাঁর সুবিধাসমূহ আরও বাড়ানোর চেস্টা করে গ্রাহক সন্তুষ্টির জন্য। গুগল কি আজকের পর্যায়ে এক দিনেই এসেছে। অবশ্যই না। একটি বাস্তব উদাহরনে আসা যাক, অন্যতম ধনী দেশ চীনের দিকে তাকান। অ্যালেক্সা র‍্যাংক লক্ষ্য করলে দেখা যাচ্ছে চীনে এক নম্বর ওয়েব সাইট হলো তাদের দেশেরই “Baidu” নামের সার্চ ইঞ্জিন। আর মজার ব্যাপার হলো চীনে অ্যালেক্সা র‍্যাংক অনুযায়ী গুগল অবস্থান করছে ১৯ নম্বর অবস্থানে! আশা করছি ব্যাপারটি পুরোপুরি পরিষ্কার। আবার এদিকে লক্ষ্য করলে দেখা যায় বাংলাদেশে প্রথম, দ্বিতীয় সাইটে রয়েছে গুগল, ফেসবুকের মতো সাইট। কিন্তু কেন? আমাদের দেশীয় সোশ্যাল নেটওয়ার্কিং সাইট, সার্চ ইঞ্জিন থাকা সত্তেও আমরা তাদের ভুলেও কোনদিন ব্যবহার করিনা। ব্যাপারটা খুব লজ্জার নয় কি? আর ব্যবহারকারী না থাকার কারণে এইসব দেশীয় সাইটেরও কিন্তু বেহাল দশা। যার পূর্ণ দায় আমাদের! কিন্তু আমরা এই অজুহাতে ব্যবহার করি অন্য দেশের পণ্য এবং সার্ভিস।

Share This Post

Post Comment