ঘুম সম্পর্কে রহস্যময় অজানা তথ্য

ঘুম সম্পর্কে রহস্যময় অজানা তথ্য

ঘুম একটি প্রাকৃতিক বিষয় এবং এটি আমাদের জীবনের একটি বিশেষ অংশ। ঘুম সম্পর্কে আমরা অনেক কিছুই জানি। তবে এখানে ঘুম সম্পর্কে কিছু বিষয় আলোচনা করা হল, যা আমরা জানি না-

১. অল্প সময়ের ঘুমের কারণে একজন ব্যক্তির সতর্কতা, মেমরি এবং সৃজনশীলতা বৃদ্ধি পায়। এটা আলস্য হিসাবে বিবেচিত হয় না। সুতরাং, দিনের সময় অল্প সময়ের ঘুম আপনার রাতের ঘুম ব্যাহত করবে না।

২. আপনি যখনি ঘুমাবেন তা অবশ্যই অন্তত ৩০ মিনিটের অধিক সময় হতে হবে। আপনি যখন ৩০ মিনিটের বেশী ঘুমাতে পারবেন, তখন আপনি গভীর ঘুমের মধ্যে থাকবেন এবং এতে আপনার টলায়মান নিদ্রাভঙ্গ হবে না।

৩. নাপালাতি ঘুমের কথা শুনেছেন কখনও? এর জন্য আপনাকে প্রথমে কফি বা চায়ের কাপ নিয়ে বসতে হবে। কফি বা চা পান করার কিছুক্ষণের মধ্যে ঘুমাতে যাবেন। ঘুম থেকে উঠে আপনি নিজেকে অনেক বেশি রিফ্রেশ হিসেবে উপভোগ করবেন।

৪. টিভি দেখলে আপনি ঘুমাতে যেতে পারবেন এরকম চিন্তা একেবারে ঠিক নয়। টেলিভিশন শুধুমাত্র আপনার ঘুমে হস্তক্ষেপ করবে। পরবর্তী সময়ে আপনি অবশ্যই বিছানায় যাবার পূর্বে টিভি বন্ধ করে যাবেন।

৫. অনেকে অনুমান করে থাকে অ্যালকোহল পান করার ফলে ঘুম বাড়তে পারে। কিন্তু আসলে অ্যালকোহল আপনাকে দ্রুত ঘুমানোর জন্য সাহায্য করতে পারে এবং আপনার যদি ঘুমের সমস্যা হয়ে থাকে তাহলে এটি আপনাকে বিশ্রামহীন ঘুম দিতেও সাহায্য করবে।

৬. সারারাত জেগে থাকার কোন প্রবণতা যদি আপনার থেকে থাকে তাহলে অবশ্যই তা পরিহার করার চেষ্টা করুন। কারণ এতে আমাদের শারীরিক ও মানসিক স্বাস্থ্যে অনেক খারাপ প্রভাব পরে। তাই পরবর্তী সময়ে রাত জাগার পূর্বে অবশ্যই চিন্তা করুন।

৭. অনেকে মনে করেন অনিদ্রা শুধুমাত্র তাদের হয়ে থাকে, যাদের অন্ত্যজ বা উদ্বিগ্ন থাকার সমস্যা রয়েছে। অনিদ্রা যে কোন সময় যে কারও হতে পারে। বেশ কিছু কারণে অনিদ্রা হতে পারে। নিজেদের আচরণ ও ধ্যান-ধারণার কারণেও অনিদ্রার সমস্যায় ভুগতে হতে পারে। তাই যদি আপনি মনে করেন আপনার ঘুমের সমস্যা আছে তাহলে ডাক্তারের কাছে যান।

৮. আপনি যদি ক্রমাগত নিদ্রালু অনুভূতি পান এবং অধিকাংশ সময় নিদ্রালু হয়ে থাকেন, তাহলে ডাক্তারের পরামর্শ নিতে দেরি করবেন না। এটার জন্য চিকিত্সার প্রয়োজন হতে পারে। আপনি মনে করবেন না যে শুধু অলসতার কারণে এরকম হচ্ছে। এর পেছনেও অনেক কারণ থাকতে পারে।

Share This Post

Post Comment