স্বাস্থ্যের জন্যে উপকারী বীজ

স্বাস্থ্যের জন্যে উপকারী বীজ

121

বর্তমানে মিষ্টিজাতীয় খাবার যেমন চকলেট বারেও বীজের ব্যবহার থাকে। কারণ অনেক বীজে প্রচুর পরিমাণ পুষ্টিগুণ থাকায় তা স্বাস্থ্যের জন্য খুবই উপকারী। শরীরের জন্য বিশেষ উপকারী এমন ৮টি বীজ নিয়ে আজকের আয়োজন-

কুমড়ার বিচি : কুমড়ার বিচিতে প্রচুর পরিমাণে আয়রন রয়েছে। এটি বলবৃদ্ধিকারক হিসেবেও বেশ পরিচিত। আমাদের দেশের সর্বত্রই কুমড়া পাওয়া যায়।

ডালিম বা আনারের বীজ : আনারের অনেক গুণ। হৃদরোগ থেকে মুক্তিসহ জটিল নানা রোগ থেকে নিজেকে মুক্ত রাখার জন্য আনারের জুড়ি নেই। আনারের বীজে কোনো ক্যালরি নেই। তবে এতে আছে প্রচুর অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট ও ভিটামিন সি আছে। এই উপাদানগুলো চর্বি কমাতে সাহায্য করে।

ক্যানাবিস গাছের বীজ : ক্যানাবিস গাছ থেকে গাঁজা তৈরি হয়। গাঁজা মাদক হিসেবে ব্যবহৃত হলেও এই গাছের বীজ স্বাস্থ্যের জন্য খুব উপকারী। এতে প্রচুর আমিষ বা প্রোটিন রয়েছে। তাছাড়া এই বীজে অ্যামিনো এসিডও রয়েছে। অপরদিকে এই বীজ ক্যালরি পোড়াতেও সাহায্য করে।
 তুলসীর বীজ : তুলসীর বীজে প্রচুর ক্যালসিয়াম আছে। দুই চামচ তুলসী বিচিতে যে ক্যালরি রয়েছে তা এক স্লাইস পনিরের সমান। দুধের সাথে তুলসী বিচি মিশিয়ে খেলে পুরুষদের অনেক উপকার হয়।
 তিল : হৃদযন্ত্রকে সুস্থ রাখতে তিলের ভূমিকা রয়েছে। তিলে আছে লিনোলেনিক এসিড। একে ওমেগা ৬ ফ্যাটি অ্যাসিডও বলা হয়। এটি কোলেস্টোরলের মাত্রা নিয়ন্ত্রণে রাখতে সাহায্য করে।
তিসি বীজ : তিসি বীজে আছে ক্যান্সার রোধকারী উপাদান। এতে ওমেগা ৩ ফ্যাটি অ্যাসিডও রয়েছে। এই উপাদানটি অতিরিক্ত ঘাম নিয়ন্ত্রণ করে। তছাড়া হাড়ের ব্যথায় খুব উপকারী।
অঙ্কুরিত গম : অঙ্কুরিত গম মানুষের হজমশক্তি বৃদ্ধি করে। শুধু তাই নয় অঙ্কুরিত গমে প্রচুর পরিমাণে ভিটামিন ‘ই’ থাকে। তাছাড়া গমের আঁশ স্বাস্থ্যের জন্য খুবই উপকারী।
 সূর্যমুখী ফুলের বিচি : সূর্যমুখী ফুলের বিচিতে প্রচুর পরিমাণে ক্যালসিয়াম আছে। এছাড়া আছে ভিটামিন এ, বি, ডি, ই এবং কে। এই ফুলের বিচিতে প্রচুর পরিমাণে আয়োডিনও বিদ্যামান। এসব উপদান স্বাস্থ্যের জন্য খুবই উপকারী।

Share This Post

Post Comment