প্রিয় নবী হযরত মুহম্মদ ( সাঃ )এর জীবনি নিয়ে বাংলা পিডিফ ই বুক

প্রিয় নবী হযরত মুহম্মদ ( সাঃ )এর জীবনি নিয়ে বাংলা পিডিফ ই বুক

আজকের এই পোস্ট শুধু মাত্র মুসলিম ভাই ও বোনেদের জন্য না আমার আজকের পোস্ট সকল মানব জাতির জন্য । আমি চাই অমুসলিম ভাই ও বোনেরাও আমাদের প্রিয় নবী হযরত মুহম্মদ ( সাঃ ) এর জীবনী পড়ুক আশাকরি আপনাদের সময় অপচয় হবে না । এই বই পড়তে বলছি বলে কেউ আমাকে খারাপ ভাবেননা কিন্তু । আমাদের সকলের উচিত বিভিন্ন ধর্ম গ্রন্থ গুলো পড়া এবং তারা কি বলেছে সেগুল জানা । তবে প্রিয় নবী হযরত মুহম্মদ ( সাঃ ) যে কতটা মহান দয়ালু ছিলেন তা হয়তো আমার কথাই আপনাদের বিশ্বাস হবে না , না হবারি কথা আমি আর কত টুকু জানি কিন্তু এমন অনেক বিশ্ববিখ্যাত মনীষি আছেন তারা তো অনেক জ্ঞানী তাদের কথাই একটু পড়ে নিন তারা কি বলেছেন আমাদের প্রিয় নবী হযরত মুহম্মদ ( সাঃ ) এর সম্পর্কে ।

** বিশ্ব বিখ্যাত মনিষীদের  প্রিয় নবী হযরত মুহম্মদ ( সাঃ ) সম্পর্কে মতা মত **

জর্জ বার্নাড শঃ যদি আগামী একশ’ বছরের মধ্যে শুধু ইংল্যান্ড নয় সমগ্র ইউরোপকে শাসন করার সম্ভাবনা কোন ধর্মের থাকে, তাহলে সে ধর্ম হবে কেবল ইসলাম । আমি সর্বদা মুহাম্মাদ (সা) এর ধর্ম প্রসঙ্গে উচ্চ ধারনা পোষণ করে এসেছি এর আশ্চর্য জীবনি শক্তির জন্য । আমার মনে হয় এটায় একমাত্র ধর্ম যা জীবনের পরিবর্তিত ধাপের সঙ্গে একাত্মীভূত হওয়ার ক্ষমতা রাখে । সেই কারণে প্রতিটা যুগেই আছে এর (সমান) আবেদন । আমি বিশ্বাস করি যদি মুহাম্মাদ (সা) এর মতো একজন মানুষ আধুনিক বিশ্বের একনায়কের পদ অধিকার করতেন, তাহলে তিনি এমন সাফ্যলের সঙ্গে এর সমস্যা গুলির সমাধান করতে পারতেন যা এর জন্য প্রয়োজনীয় সুখ ও শান্তি বয়ে আনত ।(Genuine Islam; vol. 1)

ফিলিপ কে. হিট্টিঃ পৃথিবীর সকল ধর্মের মধ্যে একমাত্র ইসলাম পেরেছিল জাত ও বর্ণের ভেদাভেদ মুছে ফেলতে । (History of the Arabs; by Philip K. Hitti, page 3)

এম.এন রায়ঃ ইসলামের অসাধারণ সাফ্যলের মুলে আছে এর বৈপ্লবিক তাৎপর্য । ইসলামই প্রথম সামাজিক সাম্য প্রবর্তন করেছিল যা সমস্ত দেশের প্রাচীন সভ্যতা গুলির মধ্যে তখনও ছিল অজানা । (The historical role of islam)

মহাত্মা গান্ধীঃ মুহাম্মাদ (সা) ছিলেন একজন মহান পয়গম্বর । তিনি সাহসী ছিলেন এবং আল্লাহকে ছাড়া কাউকে ভয় করতেন না । তিনি কখনও এক কথা বলে অন্য কাজ করতেন না । এই পয়গম্বর ছিলেন ফকিরের মতো । তিনি যদি ইচ্ছা করতেন তাহলে প্রচুর সম্পদ করতে পারতেন । আমি যখন তাঁর দুঃখের কাহিনী পড়ি তখন আমার চোখ দিয়ে কান্না ঝরে পড়ে । তিনি, তাঁর পরিবারবর্গ এবং তাঁর সঙ্গীরা কতই না কষ্ট ভোগ করেছিলেন স্বেচ্ছায় ।তাই আমার মতো একজন সত্যাগ্রহী তাঁর মতো মানুষকে শ্রদ্ধা না করে থাকতে পারে না । যিনি তাঁর মনকে নিবদ্ধ রেখেছিলেন এক আল্লাহর প্রতি এবং তিনি চিরকাল হেঁটেছেন আল্লাহ ভীরুতার পথে । মানব জাতির প্রতি তাঁর সহানুভূতি ছিল সীমাহীন । (Islam and its holy prophet as judged by the Non Muslim world; page- 20)

ড. তারাচাঁদঃ অমুসলিমদের উচিত গরিব, পদদলিত এবং অনাথদের বন্ধু চিরসত্যবাদী মুহাম্মাদ (সা) সম্পর্কে আরো ভালোভাবে জানা । মুহাম্মাদ (সা) ঘৃণাভরে প্রত্যাখ্যান করেছিলেন আরাম ও সুখের জীবন । তিনি কঠোর পরিশ্রম করতেন । নিজের পোষাক ও জুতো নিজ হাতে সেলাই করতেন । তিনি তাঁর শত্রুদের ক্ষমা করেছিলেন, দয়া দেখিয়েছিলেন ক্রীতদাসদের প্রতি । তিনি যেমন সাহসী ও অকুতোভয় ছিলেন, তেমনি ছিলেন ভদ্র ও অমায়িক । আমরা অবশ্যই স্বীকার করব যে ইসলামের বিস্তার তলোয়ার দিয়ে রাজ্যজয়ের মাধ্যমে হয়নি, ইসলামের বিস্তার হয়েছে তাঁর ব্যাক্তিত্বের জাদুতে এবং তাঁর আশ্চর্য বাগ্মীতার প্রভাবে । (Islam and its holy prophet as judged by the Non Muslim world; page- 240)

Share This Post

Post Comment