ডাল দিয়ে অসাধারণ রূপচর্চা ।

ডাল দিয়ে অসাধারণ রূপচর্চা ।

আপনার রান্নাঘরে নিশ্চয়ই আছে একেবারে সাধারণ মসুরির ডাল? গুণে ভরা এই শস্যটি কেবল খাবার হিসাবেই দারুণ নয়, রূপচর্চার উপাদান হিসাবেও কিন্তু চমৎকার! অনেকেই জানেন না যে সুন্দর, মসৃণ, মোলায়েম ও উজ্জ্বল ত্বক পাবার আকাঙ্ক্ষা পূরণ করতে পারে সামান্য এই উপাদানটি। আসুন, জেনে নেই মসুরির ডাল দিয়ে ত্বকের চর্চা করার নানা পদ্ধতি:-

১। মুখের কালচে ভাব দূর করতেঃ

মসুরির ডালকে রাতে দুধের মধ্যে ভিজিয়ে রাখুন। সকাল বেলায় ডালটা পিষে মুখে লাগান। রোজ যদি মুখে এই প্যাকটা লাগান আপনার চেহারায় কালো ভাবটা দূর হয়ে যাবে। তবে মনে রাখবেন, ডালটা রোজ তাজা তাজা পিষতে হবে আর কাঁচা দুধ ব্যবহার করবেন।

২। ত্বক সতেজ করতেঃ
মসুরির ডাল পিষে তার মধ্যে মধু এবং দই মিশিয়ে মুখে লাগান। ২০ মিনিট পর হালকা ম্যাসাজ করে ঠাণ্ডা পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন। এতে আপনার ত্বক সতেজ হবে৷

৩। মুখে বা পিঠের দাগ দূর করতেঃ

যদি মুখে বা পিঠে দাগ হয়, তাহলে মসুরির ডালের সাথে পোলাও চাল মিশিয়ে পেস্ট করুন। এর সাথে চন্দন পাউডার,মুলতানী মাটি, কমলা লেবুর শুকনো গুঁড়ো মিশিয়ে পেস্ট তৈরী করুন। ৪ চামচ শশার রসও দিন। মুখে এবং শরীরের নানা স্থানে ঐ পেস্টটা লাগান। শুকিয়ে যাওয়ার পরে ধুয়ে ফেলুন।

৪। হাতের কনুইর রুক্ষভাব কমাতে এবং কালো দাগ দূর করতেঃ
দুধে মসুর ডাল ভিজিয়ে বাটুন। মসুর ডাল বাটা, হলুদ বাটা, পালংশাক বাটা, টমেটোর রস, সূর্যমুখীর তেল একসঙ্গে মিশিয়ে কনুইয়ে লাগান। কিছুক্ষণ পর ধুয়ে ফেলুন।

৫। রোদেপোড়া দাগ দূর করতেঃ
রোদেপোড়া দাগ কমাতে মসুর ডালবাটা, কাঁচা হলুদবাটা ও মধু একসাথে মিশিয়ে ত্বকে লাগান।

৬। বলিরেখা দূর করতেঃ
বলিরেখা দূর করতে কাঁচা হলুদের সাথে মসুর ডাল বাটা দুধের সর মিশিয়ে মুখে মাখুন ফেস প্যাক হিসাবে। নিয়মিত লাগালে অবশ্যই দারুন উপকার পাবেন।
লেখাটি পছন্দ হইলে শেয়ার করতে ভুলবেন না।
নিয়মিত সুন্দর সুন্দর টিপস পেতে আমাদের ফেসবুক পেজ এ অ্যাক্টিভ থাকুন।

Share This Post

Post Comment