মায়ের মেকআপে বুদ্ধি কমে শিশুর!

মায়ের মেকআপে বুদ্ধি কমে শিশুর!

গর্ভবতী মায়ের যত্নের মাধ্যমে যত্ন নেয়া হয় গর্ভজাত শিশুর। অধিকাংশ সময় দেখা যায়, মায়ের যত্নের অবহেলায় গর্ভজাত শিশুর নানা সমস্যা হয়। তাই মায়ের ঠিকমতো খাওয়া, বিশ্রাম নেয়া, চিন্তামুক্ত রাখাসহ কতকিছুরই না ব্যবস্থা করা হয়। কিন্তু কখনো খুব বেশি গুরুত্ব দেয়া হয় না গর্ভবতী মায়ের সাজগোজ বা প্রসাধন ব্যবহারের বিষয়ে। সম্প্রতি একটি পরীক্ষায় প্রমাণিত হয়েছে অতিরিক্ত মেকআপ বা প্রসাধন ব্যবহারে গর্ভজাত শিশুর বুদ্ধি কমে যায়।

সম্প্রতি যুক্তরাষ্ট্র ভিত্তিক পাবলিক লাইব্রেরি অব সায়েন্স ওয়ান নামক এক জার্নালের গবেষণায় দেখা গেছে, গর্ভে থাকা অবস্থায় অতিরিক্ত মেকআপ করলে এর রাসায়নিক প্রভাবে শিশুর বুদ্ধি কমে যায়। পরীক্ষায় দেখা গেছে, চুল শুকানোর যন্ত্র, নেইল পলিশ, লিপস্টিক, হেয়ার স্প্রে এবং বিভিন্ন সাবানে ব্যবহৃত রাসায়নিক পদার্থগুলো গর্ভের শিশুর জন্য ক্ষতিকর। এমনকি জন্মের পর শিশুর বুদ্ধিমত্তা স্বাভাবিকের চেয়ে ছয় ধাপ পর্যন্ত কমিয়ে দিতে পারে!

জরিপটি চালানোর জন্য নিউইয়র্কের ৩২৮ জন মাকে বেছে নেয়া হয়। জরিপে দেখা যায়, প্রসাধন ব্যবহারকারী মায়েদের জন্ম দেয়া শতকরা ২৫ ভাগ সন্তানের আইকিউ স্বাভাবিকের চেয়ে কম। শিশুর বুদ্ধির বিকাশে মায়ের বুদ্ধিমত্তা এবং পারিবারিক পরিবেশের অবদানের কথাও স্বীকার করেছেন তারা। তবে সব কিছুর পরে মেকআপের রাসায়নিকের প্রভাবকে দায়ি করেছেন বিজ্ঞানীরা।

প্রসাধনসামগ্রী ছাড়াও পিভিসি দরজা, পর্দা, এমনকি গাড়ির ড্যাশবোর্ডে ব্যবহৃত রাসায়নিক পদার্থ শিশুর পাশাপাশি মায়ের শরীরের জন্য ক্ষতিকর। তাই প্রসাধন ব্যবহারের আগে তার মান যাচাই করে ব্যবহারের পরামর্শ দিয়েছেন বিজ্ঞানীরা।

Share This Post

Post Comment