জেনে নিন মেকআপের জিনিসপত্র কতোদিন পর্যন্ত ব্যবহার করা নিরাপদ

জেনে নিন মেকআপের জিনিসপত্র কতোদিন পর্যন্ত ব্যবহার করা নিরাপদ

মেকআপের জিনিসপত্রে মেয়াদউত্তীর্ণের তারিখ একেবারেই লেখা থাকে না। বিশেষ করে দৈনন্দিন ব্যবহারের মেকআপের জিনিসগুলো যেমন, আইলাইনার, মাশকারা, লিপস্টিক ইত্যাদির গায়ে একেবারেই লেখা থাকে না। কিন্তু এই জিনিসগুলো যেহেতু ত্বক, চোখ ও ঠোঁটে ব্যবহার করা হচ্ছে তাই এসকল জিনিসের ব্যাপারে সতর্ক থাকা অনেক বেশি জরুরী। তা না হলে মেয়াদউত্তীর্ণ জিনিস ব্যবহার থেকেই হতে পারে ইনফেকশন সহ নানা রোগ। তাহলে চলুন আজকে জেনে নেয়া যাক মেকআপের কোন জিনিসগুলো কতোদিন ব্যবহার করা নিরাপদ।

 

১) মাশকারা

মাশকারা সাধারণত ২ থেকে ৩ মাস ব্যবহার উপযোগী থাকে। কিন্তু যদি এর মাঝেই আপনি ভেতরের লিক্যুইড দলা হয়ে যাওয়া এবং গন্ধে পরিবর্তন দেখতে পান তাহলে মাশকারাটি ব্যবহার না করাই ভালো।

২) লিক্যুইড ফাউন্ডেশন ও কন্সিলার

৬ থেকে ১২ মাস পর্যন্ত এই জিনিসগুলো ভালো থাকে। কিন্তু যদি দেখতে পান ভেতরের জিনিস স্তরে স্তরে আলাদা হয়েছে কিংবা রঙে পরিবর্তন এসেছে তাহলে এগুলো ব্যবহার না করে নতুন করে কিনে নিন।

৩) লিপস্টিক ও লিপগ্লস

লিপস্টিকের মেয়াদ থাকে ২ বছর এবং লিপগ্লসের ১ বছর। কিন্তু যদি দেখতে পান লিপস্টিক অনেক বেশি শুষ্ক হয়ে গিয়েছে আগের তুলনায় এবং লিপগ্লস অতিরিক্ত স্টিকি ধরণের হয়ে গিয়েছে তাহলে তা ব্যবহার করা বন্ধ করে দিন।

৪) নেইলপলিশ

নেইলপলিশের মেয়াদ সাধারণত ১ থেকে ২ বছর পর্যন্ত থাকে। কিন্তু যদি নেইলপলিশ অনেক বেশি শুকিয়ে যায় যা স্পিরিট দেয়ার পরও ঠিক না হয় অথবা স্তরে স্তরে আলাদা হয়ে থাকে যা ঝাঁকুনি দিলেও ঠিক হয় না তখ তা ফেলে দেয়াই ভালো।

৫) ফেসপাউডার, আইশ্যাডো, ব্লাশঅন

২ বছর এই জিনিসগুলো ভালোভাবেই ব্যবহার করতে পারবেন। কিন্তু যদি অনেক বেশি শুষ্ক হয়ে যায় এবং সহজে ত্বকে ব্লেন্ড না হয়ে ভেসে থাকে তাহলে জিনিসগুলো ফেলে দিন।

৬) পারফিউম

পারফিউম ৮ থেকে ১০ বছর মেয়াদ থাকে। কিন্তু যদি ঘ্রানে পরিবর্তন আসে এবং লিক্যুইডের রঙ পরিবর্তিত হয়ে যায় তাহলে তা ব্যবহার করবেন না।

৭) লোশন

যদিও লোশনের গায়ে মেয়াদউত্তীর্ণের তারিখ লেখা থাকে তারপরও জেনে রাখুন এর মেয়াদ থাকে উৎপাদনের ২ বছর পর্যন্ত। কিন্তু যদি শুষ্ক ভাব চলে আসে, রঙ এবং ঘ্রানে পার্থক্য থাকে তাহলে ব্যবহার করবেন না।

Share This Post

Post Comment