তাজা কচকচে শসার দারুণ ৬টি ব্যবহার

তাজা কচকচে শসার দারুণ ৬টি ব্যবহার

দারুণ তরতাজা আর কচকচে স্বাদের পুষ্টিকর একটি সবজি শসা। এর নানা গুণ সম্পর্কে অনেকেই সজাগ। এখানে শসার আরো কিছু ব্যবহার তুলে ধরা হলো।
১. চোখের ক্লান্তি দূর করে :

দুটো শসার টুকরো দুই চোখে দিয়ে রাখলে সারাদিনের ক্লান্তিভাব চোখ থেকে দূর হবে। চোখের লালচে ভাবও দূর করে শসা। চোখের নিচে ফোলাভাবসহ কালোভাবও দূর করতে পারে।

তাজা কচকচে শসার দারুণ ৬টি ব্যবহার

 ২. ফেসিয়াল :
ত্বকের রং উজ্জ্বল করতে শসার জুড়ি নেই। কয়েকটি মিন্ট পাতার সঙ্গে কয়েক চামচ লেবুর রস ও ডিমের সাদা অংশ মিশিয়ে নিয়ে শসার সঙ্গে। এবার গোটা মুখে মাস্ক হিসেবে ব্যবহার করুন। টানা ১৫ মিনিট রেখে ধুয়ে ফেলুন। শুধু ফ্রেস নয়, চকচকে হয়ে উঠবে ত্বক।

তাজা কচকচে শসার দারুণ ৬টি ব্যবহার

 ৩. পিকেলস :
আঁচারের স্বাদ আনা যায় কচকচে শসায়। আঁচার বানাতে যেসব উপাদান ব্যবহার করেন তা আস্ত শসার সঙ্গে মিশিয়ে একটি বয়ামে রেখে দিন এক মাস। এরপর খেয়ে দেখুন। এটাকে শসার আঁচার বলতে পারেন।

 

৪. সস ও সালসা ডিপ :

দইয়ের সঙ্গে শসা বেশ মজা লাগে। দই ও শসা এক করে তা সস হিসেবে ব্যবহার করতে পারেন। এর সঙ্গে টমেটো, শস্য দানা এবং মরিচ ব্যবহার করে সালসা ডিপও বানিয়ে নিতে পারেন।

৫. স্যুপ : শসার স্যুপও তৈরি করা যায়। গরমে ঠাণ্ডা শসার স্যুপ দারুণ শান্তি দিতে পারে। দই ও শসার সস বানিয়ে নিন এক বাটি। এতে হালকা লবণ, মরিচ এবং আদার পাউডার মিশিয়ে মজার স্যুপ হতে পারে।

৬. স্যান্ডুউচ : খুব সোজা একটি বিষয়। স্লাইস করা শসা দুই পরতের পাউরুটির মধ্যে চালান করে দিন। এর ওপর ক্রিমের আস্তরণ দিন। খুব মজা লাগবে।

Share This Post

Post Comment