সৌন্দর্য চর্চায় অ্যাপেল সাইডার ভিনেগার

সৌন্দর্য চর্চায় অ্যাপেল সাইডার ভিনেগার

আমাদের সুস্থতায় কিংবা রূপচর্চার জন্য রান্নাঘরের দ্রব্য কিন্তু খুব কাজে দেয়। যেমন- মধু, হলুদ, দারুচিনি গুঁড়ো ইত্যাদি আমাদের নানা ধরণের কাজে আসে। এগুলোর মধ্যে অন্যতম হল অ্যাপেল সাইডার ভিনেগার। যা আপনি সুপার শপ বা বড় কসমেটিক্স এর দোকানেই পেতে পারেন। এই দ্রব্যটিতে আছে অ্যান্টি-ব্যাকটেরিয়াল, অ্যান্টি-ফাঙ্গাল, অ্যান্টি-ইনফ্লেমেটরি উপাদান যা ত্বকের, চুলের, দাঁতের সৌন্দর্য বৃদ্ধি করে। তাই জেনে নিন অ্যাপেল সাইডার ভিনেগারের দারুণ কিছু উপকারিতা সম্পর্কে।

ব্রন সারিয়ে তোলে-

মুখে ব্রন হলে বিরক্ত লাগাটাই স্বাভাবিক। কারণ এটি রীতিমত ত্বকের সৌন্দর্য নষ্ট করে থাকে। তাই ব্রন হলে সেখানে সামান্য অ্যাপেল সাইডার ভিনেগার লাগিয়ে দিন। কারণ এই ভিনেগারের এসিডিক উপাদান ব্রনকে শুষ্ক করে ফেলে এবং দ্রুত সারিয়ে তুলতে সহায়তা করে।

মুখের দুর্গন্ধ রোধ করে-

অনেকেরই মুখে দুর্গন্ধ হয়ে থাকে যা মাঝে মাঝে খুব অপ্রীতিকর অবস্থায় ফেলে দেয়। তাই মুখের দুর্গন্ধ রোধ করতে ১ গ্লাস পানির সাথে আপেল সাইডার ভিনেগার মিশিয়ে নিন। এই ভিনেগারের অ্যান্টিসেপটিক উপাদান মুখে দুর্গন্ধ হওয়ার ব্যাকটেরিয়া রোধ করে এবং মুখের ভেতরটা ফ্রেশ রাখেন।

খুশকি রোধ করে-

খুশকি রোধ করতে আপেল সাইডার ভিনেগার খুব ভালো। এটি ব্যবহারের মাধ্যমে চুল ও স্কাল্প উভয়ই পরিষ্কার হয় খুশকির সমস্যাও সমাধান হয়। খুশকি তাড়াতে এই ভিনেগার স্কাল্পে লাগিয়ে ১৫ মিনিট অপেক্ষা করুন তারপর ধুয়ে ফেলুন।

Share This Post

Post Comment