ফেসপ্যাকে ত্বকের পরিচর্যার উপায়

ফেসপ্যাকে ত্বকের পরিচর্যার উপায়

গ্রীষ্মের প্রখর রোদজুড়ে ঠাঁই করে নিয়েছে উষ্ণতা, খরতা ও রুক্ষতা। প্রকৃতির এই রুদ্ররূপে ক্ষয়ে যাচ্ছে জীবনীশক্তি এবং আপনার ত্বক বয়ে বেড়াচ্ছে সেই ক্লান্তির ছাপ। কিন্তু সামান্য পরিচর্যাতেই ত্বক থেকে এই রুক্ষতা ও কালিমা মুছে ত্বককে রাখা যায় তাজা ও উজ্জ্বল। নিজের জন্য সামান্য সময় বের করে ঘরোয়া উপাদান দিয়েই নিজেকে করে তুলতে পারেন সতেজ। এসব উপাদান ত্বকে পুষ্টি যোগায় ও কোষের পুনর্গঠনের পাশাপাশি রোদে পোড়া ভাবটাও কাটায়। তাত্‍ক্ষণিক সতেজতার পাশাপাশি রেখে যায় দীর্ঘস্থায়ী লাবণ্য। আসুন জেনে নিই ঘরোয়া ফেসপ্যাকে ত্বকের পরিচর্যার উপায় –

তৈলাক্ত ত্বক :

*এক চা চামচ মেথি, আতপ চাল, কাঁচা হলুদ, নিমপাতা একত্রে বেটে তাতে চন্দন ও গোলাপজল মেশান। মুখ ও যে সব জায়গা বের হয়ে থাকে যেমন, গলা, ঘাড় ও হাতে প্যাকটি লাগান। দশ মিনিট রেখে ধুয়ে ফেলুন। চাইলে সার শরীরেও এই মিশ্রণটি ব্যবহার করতে পারেন। এই প্যাক ত্বকের পোড়া কোষকে করে সজীব। ত্বক হয়ে উঠবে উজ্জ্বল।

*আধা কাপ কাঠ বাদাম থেঁতো করে নিন। এর সাথে মুগডালের গুঁড়া ও গোলাপজল মিশিয়ে প্যাক তৈরি করুন। মুগডালের পরিবর্তে মুলতানি মাটিও ব্যবহার করতে পারেন। প্যাকটি ত্বকে লাগিয়ে ১৫-২০ মিনিট রেখে ধুয়ে ফেলুন। এটি ভেতর থেকে আপনার ত্বককে রাখবে পরিষ্কার।

*কমলার খোসা, কাঁচা হলুদ ও আতপ চাল একসাথে বেটে নিন। এতে মধু ও গোলাপজল মেশান। প্যাকটি ত্বকে লাগিয়ে হালকা মাসাজ করুন এবং ২০ মিনিট পর ধুয়ে ফেলুন। আপনার ত্বকের সজীবতা দেখে নিজেই চমকে যাবেন।

শুষ্ক ত্বক :

*এক চা চামচ আমন্ড অয়েল, এক চা চামচ পিপারমিন্ট অয়েল, মুগডালবাটা ও ময়দা মিশিয়ে প্যাক তৈরি করুন। মুখে এবং বের হয়ে থাক জায়গাগুলো লাগান। ২০ মিনিট রেখে ধুয়ে ফেলুন। এটা ত্বকের জ্বলুনি কমাবে এবং ত্বককে করবে সজীব।

*এক চা চামচ মধু, এক চা চামচ পাতিলেবুর রস, এক চা চামচ নারকেল তেল, ময়দা ও পরিমাণমতো কাঁচা দুধ একসাথে মিশিয়ে মুখে, গলায়, হাতে, ঘাড়ে লাগান। আঙুল দিয়ে হালকা মাসাজ করুন। ২০ মিনিট পর ধুয়ে ফেলুন। দেখবেন, ত্বকের রুক্ষতা উধাও হয়ে গেছে।

*ময়দা, গোলাপজল, চন্দনগুঁড়া একসাথে মিশিয়ে ত্বকে লাগান। ১৫ মিনিট পর ধুয়ে ফেলুন। ত্বকের ক্লান্তি দূর হবে এবং কুঁচকে যাওয়া চামড়া আগের অবস্থায় ফিরে আসবে।

স্বাভাবিক বা মিশ্র ত্বক :

*কমলা বা আমের খোসাবাটা, চন্দনগুঁড়া, কাঠবাদামবাটা, কয়েক দানা কর্পূর ও কাঁচা দুধ মিশিয়ে প্যাক বানান। মুখে, গলায়, ঘাড়ে ও হাতে প্যাকটি লাগিয়ে ২০ মিনিট রাখুন ও তারপর ধুয়ে ফেলুন। এটি ত্বকের উজ্জ্বলতা ও সজীবতা ফিরে পেতে সাহায্য করবে।

*ময়দা, টক দই, লেবুর রস ও গোলাপজল মিশিয়ে ত্বকে লাগান। হালকা মাসাজ করুন এবং ১৫ মিনিট পর ধুয়ে ফেলুন। এটা মৃতকোষ সরাতে সাহায্য করে এবং কোষের পুনর্গঠন করে।

*মুলতানি মাটি, অ্যালোভেরা, টমেটোর রস ও চালের গুঁড়া একসাথে মিশিয়ে ত্বকে লাগান এবং হালকা মাসাজ করুন। ৩০ মিনিট পর ধুয়ে ফেলুন। এই প্যাক নিয়মিত ব্যবহারে আপনার ত্বকে আসবে দীর্ঘস্থায়ী দীপ্তি।

ত্বকের ধরন অনুযায়ী ফেসপ্যাক ব্যবহারের পাশাপাশি প্রাত্যহিক ত্বক চর্চায় রাখুন বরফ। বাইরে থেকে ফিরে এক টুকরো বরফ নরম কাপড়ে পেঁচিয়ে ত্বকে ঘষুন। বরফ কখনোই সরাসরি ত্বকে লাগাবেন না। বাইরে থেকে ফিরে সাবান বা ফেসওয়াস দিয়ে মুখ ধুয়ে ফেলুন। এতে ত্বকে কালচে ছাপ কম পড়বে। টমেটো, শসা, আলু ও অ্যালোভেরা রস করে ফ্রিজে রাখুন। বাইরে থেকে ফিরে ঠান্ডা রসে তুলো ভিজিয়ে রোদে পোড়া জায়গাগুলোতে লাগান। ত্বকে পোড়াভাব স্থায়ী হতে পারবে না।

Share This Post

Post Comment